সরকারি চাকরিতেও থাকছে না পেনশন

১ জুলাই থেকে নতুন নিয়োগপ্রাপ্তদের জন্য কার্যকর ‘প্রত্যয়’

আগামী বছরের ১ জুলাই থেকে যেসব ব্যক্তি সরকারি চাকরিতে যোগ দেবেন তারা আর প্রচলিত পেনশন সুবিধা পাবেন না। এর পরিবর্তে তাদেরকে সর্বজনীন পেনশনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট দফতর কাজ শুরু করে দিয়েছে বলে জানা গেছে।

নতুন পেনশন স্কিম প্রত্যয় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সুবিধা ‘কমবে’

অর্থমন্ত্রী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় উল্লেখ করেছেন আগামী বছরের অর্থাৎ ২০২৫ সালের ১ জুলাই বা তৎপরবর্তীতে যোগদানকারী সরকারি কর্মচারীরাও সর্বজনীন পেনশনের আওতায় আসবেন।

বর্তমানে সরকারি চাকুরেদের বিদ্যমান পেনশন নীতিমালা অনুযায়ী ২৫ বছর চাকরি হওয়ার পর যে কেউ চাকরি থেকে অবসর নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে তার বেসিকের বা মূল বেতনে ৯০ ভাগ পেনশন হিসেবে গণনা করা হয়। যদি কারো শেষ বেতন ৬০,০০০/- হয় তাহলে ওই বেতনের ৯০% অর্থ, অর্থাৎ ৫৪,০০০/- টাকা পেনশনের জন্য গণনা করা হয়। যার ৫০% অর্থাৎ ২৭০০০/- টাকার ওপর প্রতি টাকায় ২৩০/- টাকা হারে এককালীন ৬২ লাখ ১০,০০০ হাজার টাকা দেয়া হয় এবং বাকি ২৭০০০/- টাকার সাথে চিকিৎসা ভাতা বাবদ ১৫০০/- যোগ করে ২৮,৫০০/- প্রতি মাসে মাসিক পেনশন হিসেবে প্রদান করা হয়।

কী আছে নতুন এই পেনশন কর্মসূচিতে। আজ থেকে চালু হচ্ছে পেনশন স্কিম প্রত্যয়

প্রতি বছর মূল পেনশনের সমপরিমাণ ২টা উৎসব ভাতা, ২০% বৈশাখী ভাতা, পে-স্কেল হলে নতুন করে পেনশন নির্ধারণের সবিধাও প্রাপ্য হন। আরো আছে, এখন আবার ৫% বিশেষ ভাতাও পায় মাসিক পেনশনের সাথে অর্থাৎ ২৮৫০০/- এর সাথে বিশেষ ভাতা বাবদ আরোপিত ১৩৫০/- তার মানে সব মিলে ২৯৮৫০/- টাকা পাচ্ছেন।

বিদ্যমান নীতি অনুযায়ী পেনশন পাবার জন্য কোনো সরকারি চাকুরেদের বেতন থেকে কোনোপ্রকার অর্থ কর্তন করা হয় না। সব অর্থ সরকারি কোষাগার থেকে দেয়া হয়ে থাকে।

Leave a Comment